চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭, ৬ সফর ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
পর্ব-১
নাবচ ও ফোবানা এবং কিছু কথা
ড. আব্দুস সাত্তার
২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


১৯৮৭ সালের লেবার ডে উইক এন্ডে প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ওয়াশিংটন ডিসির বিশ্ব ব্যাংকের অডিটরিয়ামে। সম্মেলনের কনভেনার ছিলেন ইকবাল বাহার চৌধুরী এবং সদস্য সচিব ছিলেন ওয়াহেদ হোসাইনী। অবশ্য তখন এই সম্মেলনের নাম ছিল নর্থ আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন (ঘঅইঈ)।



৪ বছর পর ১৯৯০ সালে ডালাস সম্মেলন থেকে ফেডারেশন অব বাংলাদেশি এসোসিয়েশনস ইন নর্থ আমেরিকা (ঋঙইঅঘঅ)। বর্তমানে উত্তর আমেরিকায় বসবাসকারী বাংলাদেশীদের কাছে অতি পরিচিত নাম ফোবানা। শৈশব-কৈশোর পেরিয়ে ফোবানা এখন পূর্ণ যৌবনে। যেই ওয়াশিংটন ডিসি থেকে ফোবানা সম্মেলন শুরু আজ আবার সেই ডিসিতেই ফোবানা সম্মেলন। গৌরব আর আনন্দের কথাই। এই গৌরবের অধিকারী উত্তর আমেরিকাবাসী সকল বাংলাদেশী। ফোবানা সম্মেলন মানেই বাংলাদেশ সম্মেলন তথা উত্তর আমেরিকায় বসবাসরত সকল মানুষের সম্মেলন, সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের মহামিলন।



শত-সহস্র প্রবাসী বাংলাদেশীদের মহামিলনের ফলে আমাদের প্রাণপ্রিয় স্বদেশ বাংলাদেশ, দেশের ঐতিহ্যবাহী কৃষ্টি সকলের সামনে তুলে ধরার একটি বিরাট সুযোগ। সকলের সহযোগিতায় আমাদের নতুন প্রজন্মের জন্য আমরা এই সুযোগটি কাজ লাগাতে চাই। কেননা ফোবানার মাধ্যমে বছরে একবারই আসে এই সুযোগ। পাশাপাশি একটি কথা না বললেই নয়, শত মতের শত পথের মানুষদের সম্মেলনে সকলের লক্ষ হোক বিভেদ নয় ঐক্য। উত্তর আমেরিকায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের সংখ্যা বৃদ্ধির ফলে আমরা বাংলাদেশীরা একটি অবস্থানে এসে পেঁৗছেছি। আমাদের স্বজনরাই আজ যুক্তরাষ্ট্রের কাউন্সিলম্যান, কংগ্রেসম্যান ও সিনেটর। হয়ত সেদিন দূরে নয় আমাদের প্রজন্মই হবে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট। তাই আমাদের দরকার শক্তিশালী ঐক্যবদ্ধ বাংলাদেশী কমিউনিটি। ফোবানা সম্মেলন সেই শক্তিশালী আর ঐক্যবদ্ধ কমিউনিটি গড়তে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে বলেই আমাদের বিশ্বাস। কিন্তু বাস্তবে কী হচ্ছে? অনেক চমক আছে...চোখ রাখুন আগামী পর্বে...।



ড.আব্দুস সাত্তার, লেখক ও সাংবাদিক, ওয়াশিংটন ডিসি।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৬-সূরা দাহ্র বা ইন্সান


৩১ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২১। তাহাদের আবরণ হইবে সূক্ষ্ম সবুজ রেশম ও স্থুল রেশম, তাহারা অলংকৃত হইবে রৌপ্য নির্মিত কংকনে, আর তাহাদের প্রতিপালক তাহাদিগকে পান করাইবেন বিশুদ্ধ পানীয়।


২২। অবশ্য, ইহাই তোমাদের পুরস্কার এবং তোমাদের কর্মপ্রচেষ্টা স্বীকৃত।


 


ভয়কে যারা মানে তারাই জাগিয়ে রাখে ভয়।


-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


 


 


 


যে ব্যক্তি নীরবতা অবলম্বন করেছে সে মুক্তি লাভ করেছে।


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৬৪,৯৩২ ৬,৩১,৩৫,৯৭৩
সুস্থ ৩,৮০,৭১১ ৪,৩৬,১২,৩৫৩
মৃত্যু ৬,৬৪৪ ১৪,৬৬,২৮৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৯০২০১
পুরোন সংখ্যা